bangla health news

পেটের মেদ কমানোর জন্য সহজ পদ্ধতি কে না জানতে চায়। পেটের মেদ দেখতে খারাপ দেখাচ্ছে শুধু তাই নয়, আপনার স্বাস্থ্যের জন্যও এটি বিপজ্জনক। ভিসারাল ফ্যাট এর কারণে স্ট্রোক, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ এমনকি ক্যান্সার সহ অনেকগুলি মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। সাধারনত ডায়েট কন্ট্রোল এবং ব্যায়াম হ’ল পেটের মেদ থেকে মুক্তি পাওয়ার সর্বোত্তম উপায়। তবে কিছু ঘরোয়া এবং প্রাকৃতিক কার্যকর উপায় রয়েছে যা আপনি ব্যবহার করতে পারেন। bangla health news

এখানে পেটের মেদ কমানোর জন্য ব্যায়াম ছাড়াই কিছু সহজ কৌশল হিসাবে কার্যকর প্রাকৃতিক এবং ঘরোয়া উপায় দেওয়া হয়েছে যা আপনার পেটের ভুড়ি কমিয়ে আপনাকে স্লিম করে তুলবে।

#কাঁচা রসুনঃ পেটের মেদ কমানোর জন্য সবচেয়ে সহজ কৌশল হিসাবে সকালে, কয়েকটি রসুনের কোয়া নিতে পারেন এবং সেগুলো কাঁচা চিবান। প্রথম দিকে কাঁচা রসুন চিবাতে আপনার অসুবিধা হতে পারে তবে কিছুদিন খাওয়ার পর তা অভ্যাসে পরিনত হবে। bangla health news

#লেবু দিয়ে গরম পানিঃ পেটের মেদ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য লেবু দিয়ে গরম পানি এটি একটি অন্যতম সেরা, সহজ ও কার্যকর উপায়। এর জন্য আপনার যা প্রয়োজন তা হ’ল গরম পানি, কয়েক ফোঁটা লেবু এবং আপনি চাইলে এর সাথে সামান্য পরিমান লবণ বা এক চা চামচ মধু নিতে পারেন। এটি আপনি সকালে খালি পেটে খেলে খুব কার্যকর।

#সারাদিনে কমপক্ষে আট গ্লাস পানি পান করুনঃ জীবনের অপর নাম পানি।  অতিরিক্ত মেদ থেকে মুক্তি পেতে পানি একটি খুবই কার্যকর উপাদান। সারাদিনে কমপক্ষে আট গ্লাস পানি পান করুন।  তবে এখানে বলে রাখা ভাল পানি পানের পরিমান  বিভিন্ন ওজনের লোকের পক্ষে পৃথক হতে পারে। তাই আপনি দিনে কতটুকু পানি পান করবেন তার মাত্রা ঠিক করতে নিম্নলিখিত সূত্রটি অনুসরণ করুন-

এটি বাহির করতে আপনার ওজন কতটুকু তা কেজি দিয়ে নির্ণয় করুন এবং সংখ্যাটি ৩০ দ্বারা ভাগ করুন। আপনার ফলাফলটি লিটার হিসাবে আপনার আদর্শ পানির গ্রহণযোগ্য মাত্রা হবে।

যেমনঃ আপনার ওজন ৪০ কেজি। তাহলে আপনার আদর্শ পানির পরিমাণ ৪০/৩০, যা ১.৩৩ লিটার।

#মেদ কমাতে গরম চাঃ মেদ কমার জন্য নিয়মিত গরম চা পান করুন। এর মধ্যে গ্রিন টি, দারচিনি বা প্রাকৃতিক মশলা দিয়ে স্বাদযুক্ত কোনও চা অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। গ্রিন টি মস্তিষ্কের ক্রিয়া এবং স্মৃতিশক্তি এবং পেটের ভুড়ি কমাতে যথেষ্ট কার্যকর। নিয়মিত গরম চা পানে পেটের মেদ কমানোর জন্য খুবই সহায়ক কারণ এগুলি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এবং অন্যান্য প্রচুর ভিটামিন এবং খনিজসমৃদ্ধ।

গ্রিন টি কীভাবে পান করবেন: ৭-১০ মিনিটের জন্য এক মগ ফুটন্ত পানিতে ৫ টি গ্রিন টি ব্যাগ ছেড়ে দিন। চা তৈরী হওয়ার সময় আপনি কিছু পুদিনা পাতা দিতে পারেন। চিনির বিকল্প হিসাবে মধু যোগ করুন। তবে অবশ্যই মনে রাখবেন খাবারের আগে গ্রিন টি পান করা ভাল।

#কাঁচা ফল বা শাকসব্জিঃ প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় কাঁচা ফল বা শাকসব্জি রাখতে পারেন। যেমন: শসা, তরমুজ, আপেল, আনারস, কাঁচা পেয়ারা ইত্যাদি। কাঁচা ফল বা সব্জি ফাইবার এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ তাই দ্রুত ওজন হ্রাসে এটি খুব কার্যকর। bangla health news

#পেটের মেদ কমানোর জন্য জিরার পানির গুরুত্বঃ জিরার পানি পেটের মেদ কমানোর দারুন বিকল্প হিসাবে কাজ করে তাই সকালে জিরার পানি প্রথমে পান করুন।এক চা চামচ জিরা নিন এবং তা পানিতে সেদ্ধ করুন অবশ্যই তা কুসুম কুসুম গরম অবস্থায় পান করুন।  জিরা পানি পেটের ফোলাভাব এবং মেদ ঝরিয়ে ফেলতে খুবই কার্যকর ভূমিকা পালন করে।

#মেদ কমাতে চিয়া বীজঃ মেদ কমাতে চিয়া বীজের ভূমিকা অপরিসীম।  চিয়া বীজ আপনার ডায়েটে খুব বেশি ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড পাওয়ার এক অসাধারন উপায়। আপনি যদি নিরামিষভোজী হন তবে চিয়া বীজ অবশ্যই আপনার খাওয়া উচিত। চিয়া বীজের মধ্যে ক্যালসিয়াম, আয়রন, অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস এবং প্রচুর পরিমাণে ফাইবারও রয়েছে।

চিয়া বীজ কীভাবে খাবেনঃ সারাদিনে কমপক্ষে ১ চা চামচ চিয়া বীজ খাওয়ার চেষ্টা করুন। চিয়া বীজের সাথে আপনি অবশ্য ওটমিল যুক্ত করতে পারেন। তবে আপনি স্বাস্থ্যকর খাবারের জন্য দুধের সাথে চিয়া বীজের পুডিংও তৈরি করতে পারেন। bangla health news

#চিনি থেকে বিরত থাকুনঃ মিষ্টি জাতীয় খাবার যেমন: মিষ্টি, চিনিযুক্ত পানীয়, আইসক্রিম,  কার্বনেটেড পানীয় ইত্যাদি খাবার থেকে বিরত থাকুন। আপনি যদি পেটের মেদ কমানোর পরিকল্পনা গ্রহন করে থাকেন তাহলে মিষ্টি জাতীয় সকল খাবার অবশ্যই পরিত্যাগ করতে হবে। চিনি আপনার শরীরের মেদ বাড়ায়, বিশেষত আপনার পেট এবং উরুর চারপাশে। চিনির বিকল্প হিসাবে মধু, কিসমিস, খেজুর, স্টেভিয়া, ফলের রস এগুলো খেতে পারেন।

About the author : Mannan570

Leave A Comment